Blog

ফ্রীল্যান্সিং কি?

Posted by on Apr 29, 2018 in Blog | 0 comments

Freelancing

ফ্রীল্যান্সিং (Freelancing) শব্দের অর্থ মুক্ত পেশা ।  যারা ফ্রীল্যান্সিং করেন তাদের কে বলা হয় ফ্রীল্যান্সার (Freelancer)।  ফ্রীল্যান্সাররা বেতন নিয়ে চাকরি করেন না। তারা স্বাধীনভাবে চুক্তিভিত্তিক কাজ করেন। তাই তাদের ইনকাম প্রতিমাসে কম বেশি হতে পারে। তাদের ইনকাম নির্ভর করে চুক্তি ও কাজের উপর। তবে স্বাধীনভাবে কাজ করেন।

যেমন ধরুন একজন ফ্রীল্যান্স ফটোগ্রাফার ছবি তুলে আয় করেন। কেউ একজন তাকে বললো তাকে একটা প্রোগ্রামের ছবি তুলতে হবে। এখন সে চাইলে এই কাজটি করতে পারেন আবার চাইলে নাও করতে পারেন। এখানে তাকে কেউ বাধ্য করতে পারছে না কারণ সে চুক্তিবদ্ধ নয় এবং কোথাও চাকরিও করেছেন না। ফলে সে স্বাধীন একজন ব্যক্তি যিনি চাইলে কাজ নিতে পারেন আবার চাইলে নাও নিতে পারেন। আর এই স্বাধীন কাজ করার ক্ষমতাই হচ্ছে ফ্রীল্যান্স।

ফ্রীল্যান্সিং আউটসোর্সিং এর একটি অংশ হতে পারে আবার নাও হতে পারে। কারন ফ্রীল্যান্সিং মুলত স্বাধীনভাবে কাজ করা বোঝায় আর আউটসোর্সিং হচ্ছে ঘরে বসে দূরের কাজ। এখন একজন ব্যক্তি তার সুবিধামত কানাডার এক ক্লাইন্টের সাইটের এসইও করে দিচ্ছে।  এক্ষেত্রে সে আউটসোর্সিং এবং ফ্রিল্যান্সিং দুটোই করছে। কারন সে এখানে স্বাধীন, তার সুবিধামত সময়ে ইচ্ছেমত কাজ করছে এবং ঘরে বসে দুরের কাজ করছে।

আবার একজন ফটোগ্রাফার একটি বিয়ের ফটোগ্রাফির চুক্তি করলো। এখানে ফ্রিল্যান্সিং হলেও আউটসোর্সিং হচ্ছেনা। কারন তাকে বিয়ে বাড়িতে গিয়ে কাজটা করে দিয়ে আসতে হচ্ছে।

ফ্রীল্যান্সিং কিন্তু অনলাইন বা অফলাইন দুরকমেরই হতে পারে।

অনলাইনে যারা স্বাধীনভাবে কাজ করেন তারা অনলাইন ফ্রীল্যান্সার। আমাদের দেশে অনলাইন ফ্রীল্যান্সাররা বেশি নাম করেছে। ফলে আমরা ফ্রীল্যান্সার বলতে অনলাইন ফ্রীল্যান্সার ভাবি।

আর যারা অনলাইনের বাইরে স্বাধীনভাবে কাজ করেন তাদেরকে অফলাইন ফ্রীল্যান্সার বলে বা ফ্রীল্যান্সার বলে। যেমন: ফ্রীল্যান্স ফটোগ্রাফার, ফ্রীল্যান্স ফিল্ম মেকার ইত্যাদী। মজার ব্যাপার হচ্ছে, শাব্দিক অর্থে একজন দিনমজুর বা একজন কাঠ মিস্ত্রিও কিন্ত একজন ফ্রীল্যান্সার। কেননা তারাও স্বাধীনভাবে কাজ করে। ইচ্ছে হলেই তারা যেকোন দিন কাজ থেকে বিরত থাকতে পারে, যেটা একজন চাকরীজীবির পক্ষে সম্ভব নয়।

সুতরাং আমরা উপরের আলোচনায় বুঝতে পারলাম, ফ্রীল্যান্সিং হচ্ছে স্বাধীনভাবে কাজ করা সেটা অনলাইনে হোক বা অফলাইনে হোক।

অনলাইনে কোথায় ফ্রীল্যান্সিং করবেন?

আমরা সাধারনত বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে অনলাইন ফ্রীল্যান্সিং করি। তাই ফ্রীল্যান্সিং শুরু করার আগে মার্কেট প্লেস সম্পর্কে ভালভাবে ধারনা নেয়া জরুরী। চলুন দেখি কোন কোন সাইটে আমরা ফ্রীল্যান্সিং করতে পারি।

  • upwork.com
  • freelancer.com
  • guru.com
  • 99designs.com
  • fiverr.com
  • www.getacoder.com

এই সাইটগুলোই বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় ফ্রীল্যান্সিং সাইট। এ সাইটগুলোতেই ফ্রীল্যান্সাররা কাজ করে থাকে। একজন ফ্রীল্যান্সার কোন একটি বিশেষ কাজের উপর আগে দক্ষতা অর্জন করে তারপর মার্কেটপ্লেসে কাজ করে থাকে। তবে কেউ কেউ একাধিক কাজে পারদর্শী।

ফ্রীল্যান্সিং সাইট গুলোতে কি কি কাজ করা যায়?

সহজ করে বলতে গেলে এমন কোন কাজ নাই যেটার বিষয়ে অনলাইনে কোন কাজ নাই। বিষয় হলো আপনি কোন কাজ টা খুব দক্ষতার সাথে পারেন, সেটার উপরই আপনাকে জোড় দিতে হবে এবং মার্কেটপ্লেসে সে কাজ খুজে বের করতে হবে। তবে যে কাজগুলো বেশি জনপ্রিয় তার একটা তালিকা নিচে দেয়া হলো-

  • লেখা লেখি
  • ডেটা এন্ট্রি
  • প্রোগ্রামিং
  • মার্কেটিং
  • টাইপিং
  • ডিজাইনিং
  • ইমেজ এডিটিং
  • ভিডিও ইডিটিং
  • প্রেজেন্টেশন তৈরি
  • ওয়েব ডেভেলপমেন্ট
  • ভার্চুলাল এসিস্ট্যান্ট সহ অনেক কিছু।

Source: www.eshoaykori.com

Internship Offer

Posted by on Mar 24, 2018 in Blog | 0 comments

Internship Offer

Earn Money With YouTube | Training Contents

Posted by on Feb 5, 2017 in Blog | 0 comments

Learn & Earn From YouTube

For the beginners only

 

#অনলাইন থেকে #আয় করুন #YouTube এর মাধ্যমে
#training #3i #outsourcing #freelancing #affiliatemarketing #SEO #emailmarketing #digitalmarketing

 

Registration Fee: 2,000/-

Training Duration: 5 Days (2 Hours a Day)

Internship: 2 Months Internship After Completion of Training.

 

Training Contents

– Keyword Analysis
– Micro Niche Selection Process
– How To Use Socialblade.com?
– Adsense
– How To Add Multiple Gmail ID To Adsense?
– SEO
– Channel Optimization
– Creation of Multiple Channels in a Single Gmail Account.
– Add Multiple Channels In One Adsense.
– Image Optimization
– Video Selection & Download.
– Video Editing (Camstudio 8)
– Video Monetization
– Promote To Social Media
– How To Use Pinglr.com?
– Annotation Use On YouTube Video.
– Big Thumbnail to FaceBook.
– Unique Image Creation
– Checking Earnings with Google Adsense
– Idea on Teespringer.com
– Idea on Affiliate Marketing (FaceBook & Google Blogger)

 

 

Learn & Earn Money Money From YouTube

Posted by on Jan 20, 2017 in Blog | 0 comments

Learn How To Earn Money From YouTube

 

YouTube থেকে কি সত্যিই ইনকাম করা যায়?
অনেকের মধ্যেই এ নিয়ে সন্দেহ রয়েছে |
আসুন দেখা যাক একটি সহজ সূত্র দিয়ে বিষয়টি বুঝতে পারা যাই কিনা |
ধরা যাক ১ টি ভিডিওর জন্য ১০০০ ভিউ তে YouTube ১ ডলার দিয়ে থেকে |
তবে সেটা ভিউয়ার দ্বারা অবশ্যই সঠিক ভাবে ভিউ হতে হবে |
যাই হোক যদি আপনার বিভিন্ন চেনেল এ ১০০ টি ভিডিও থাকে এবং প্রতি ভিডিওতে যদি ১০০০ করে ভিউ হয় তাহলে YouTube আপনাকে দিচ্ছে ১০০ ডলার |
আর যদি ১০০০ টি ভিডিও থাকে এবং প্রতি ভিডিওতে যদি ১০০০ করে ভিউ হয় তাহলে YouTube আপনাকে দিচ্ছে ১০০০ ডলার |
খুউব সহজ সমীকরণ |
কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে এতো ভিডিও পাবেন কোথায় ?
প্রতিটি ভিডিও আবার হতে হবে স্বতন্ত্র |
কাট কপি করে করা যাবে না | করতে হবে নিজেস্ব চিন্তা শক্তি প্রয়োগ করে |
সুতরাং শুরু করার আগে নিজের লক্ষ্য স্থির করে পরিকল্পনামাফিক কাজ করে যেতে পারলেই YouTube থেকে আপনি ইনকাম করতে পারবেন খুব সহজেই |
সবাইকে ধন্যবাদ
বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করুন 01713867116, 01961524145
Email: three.i.template@gmail.com
FB: www.facebook.com/onlineincomewith3i

YouTube Review Class | How To Create Video With YouTube Photo Slideshow

 

 

YouTube Review Class | How To Create Youtube Slideshow From Powerpoint

 

YouTube Review Class | How to download YouTube videos

 

 

YouTube Review Class | How to share big thumbnail youtube video link to Facebook

 

 

YouTube Review Class | How to edit camstudio project and produce

 

 

How To Post Youtube Videos With Large Thumbnail In Facebook Page 2016

 

 

 

CAMTASIA – Whiteboard Hand Animation | 3i Template IT Solutions

 

 

Intro | 3i Template IT Solutions

 

 

Outsourcing Training With Internship

Posted by on Oct 20, 2016 in Blog | 0 comments

আউটসোর্সিং শিখুন এবং জানুন। আয় করুন প্রতিদিন ২৫০-৫০০ টাকা পর্যন্ত। মাসে আয় করুন নূন্যতম ৩,০০০-১২,০০০ টাকা। নিজের আয় থেকেই পরিশোধ করুন কোর্সের টাকা। নিজেকে স্বাবলম্বী করুন । বদলে ফেলুন নিজেকে। বদলে ফেলুন জীবনের গতি। হতাশা এবং সকল নেতিবাচক চিন্তা পরিহার করে আত্মবিশ্বাসের সাথে কাজ করে যান। মনে রাখবেন, ভাগ্য নয়, একমাত্র কঠোর পরিশ্রমই আপনার জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারে।

আউটসোর্সিং কথাটির সাথে আমরা কম বেশি সবাই পরিচিত । এ বিষয়ে আর তেমন বিস্তারিত কিছু বলছি না । সরাসরি আমরা কাজের কোথায় চলে আসি । বিভিন্ন ধরণের কাজের মধ্যে থেকে আপনি কি ভাবে উপার্জন করতে পারবেন তা একটি উদাহরণের মাধ্যমে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো ।

প্রতিদিন আপনি নূন্যতম কত টাকা আয় করতে পারেন?

ধরুন আপনাকে ফেইসবুক এ লিংক পোস্টিং এর একটি কাজ দেয়া হলো ।  বলা হলো প্রতিদিন নূন্যতম ১২০ টি ফেইসবুক গ্রুপ এ লিংক পোস্ট করতে হবে । প্রতি পোস্ট এর মূল্য ২৫ পয়সা । ধরুন আপনার কাছে ৫ টি ফেইসবুক আইডি আছে । প্রতিটি ফেইসবুক আইডি থেকে আপনি প্রতিদিন ১২০ টি করে পোস্ট দিচ্ছেন । তাহলে এখন হিসাব করে দেখুন আপনার প্রতিদিনের আয় কত হচ্ছে  ৫ x ১২০ x .২৫ = ১৫০ টাকা ।

তাহলে আপনার মাসিক আয় নূন্যতম কত হলো শুধুমাত্র এক ধরণের করে?

আপনি যদি মাসে ২৬ দিন কাজ করেন । তাহলে আপনার মাসিক ইনকাম হবে ৩,৯০০ টাকা শুধুমাত্র এক ধরণের কাজ করেই।

আর এ কাজের জন্য আপনার কত সময় লাগবে?

ধরুন প্রতি পোস্ট এর জন্য আপনার সময় লাগে ১৮ সেকেন্ড । তাহলে ৫ টি ফেইসবুক আইডি থেকে ১২০ টি করে পোস্ট দিলে আপনার সময় লাগবে: ৫ x ১২০ x ১৮ = ১০,৮০০ সেকেন্ড = ১৮০ মিনিট = ৩ ঘন্টা ।

প্রতিদিন ৩ ঘন্টা কাজ করে ৩,৯০০ টাকা আয় করা সম্ভব। আপনি যদি প্রতিদিন এধরণের ৩/৪ টি কাজ করতে পারেন এবং কাজের সময় কমিয়ে আনতে পারেন তাহলে আপনার আয় আরো অনেক গুন্ বেড়ে যাবে নিঃস্বন্দেহে।

নিজের আয় থেকে সম্পূর্ণ কোর্সের টাকা কিভাবে পরিশোধ করবেন?

কাজ পাবার ব্যাপারে আমরা শতভাগ নিশ্চয়তা দিচ্ছি। কাজ শেখার জন্য আপনাকে মাত্র ১,৫০০ টাকা রেজিস্ট্রেশন ফী দিয়ে ১ মাসের একটি কোর্স সম্পন্ন করতে হবে। আমাদের সম্পূর্ণ কোর্সের মূল্য ১৫,০০০ টাকা মাত্র। এই টাকা আপনার আয় থেকে ৪৫% করে কেটে রাখা হবে। কোর্স শেষে পরবর্তী ২ মাস আমাদের সাথে ইন্টারশিপ এর মাধ্যমে যুক্ত থাকতে হবে। উল্লেখ্য যে, অনলাইন এর মাধ্যমেও এই কোর্সটি আপনি অনায়াসে করতে পারবেন।

আমাদের প্রতিটি কাজের একটি নূন্যতম যোগ্যতার মাপকাঠি আছে। আপনি নূন্যতম যোগ্যতার মাপকাঠি অনুসারে কাজ করতে সক্ষম হওয়া মাত্রই আপনি নিশ্চিত ভাবে কাজ পেতে শুরু করবেন। আমরা আগেই বলেছি, এ ব্যাপারে আমরা শতভাগ নিশ্চয়তা প্রদান করছি।

কাজের ব্যাপারে যে কোনো সাহায্যের জন্য আপনি সার্বক্ষণিক আমাদের সাথে যুক্ত থাকতে পারবেন। যে কোনো নতুন কাজের ব্যাপারে আপনাকে জানানো হবে এবং আপনি চাইলে সেই কাজের কোর্সটি করে নিতে পারবেন।

 

outsourcing-training

outsourcing-training

 

এ বিষয়ে আরো বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করুন

01713867116, 01720025289, 01961524145

 

ভিজিট করুন : http://3itemplate.com

www.facebook.com/onlineincomewith3i

 

Email: three.i.template@gmail.com

 

আপনার নূন্যতম যা থাকলে আপনি কাজ করতে পারবেন:

১. একটি ভালো মানের ল্যাপটপ অথবা ডেস্কটপ কম্পিউটার।

২. দ্রুত গতির ইন্টারনেট কানেকশন।

৩. কম্পিউটার পরিচালনার দক্ষতা।

৪. ভালো টাইপিং স্পিড।

 

অন্যান্য শর্তাবলী:

১. কোর্সের মূল্য ১৫,০০০ টাকা মাত্র। এই টাকা আপনার আয় থেকে ৪৫% করে কেটে রাখা হবে।

২. রেজিস্ট্রেশন ফী ২,০০০ টাকা মাত্র।

৩. ট্রেনিং শেষে ২ মাস ইন্টার্নশীপ।

৪. পেওনিয়ার কার্ড অথবা ব্যাঙ্ক একাউন্ট এ আপনার আয়ের অর্থ প্রদান করা হবে।

৫. মোট আয়ের ১০% সার্ভিস চার্জ বাবৎ কেটে রাখা হবে।

৬. প্রতিটি নতুন কোর্সের রেজিস্ট্রেশন ফী ৫০০ টাকা।

 

Seminar on Affiliate Marketing

Posted by on Sep 28, 2016 in Blog | 0 comments

Seminar on Affiliate Marketing

Seminar on Affiliate Marketing

Click here for registration: http://tinyurl.com/jbc6c2d

Internship Program 6 With Industrial Attachment

Posted by on Aug 23, 2016 in Blog | 0 comments

Technical Support & Freelancing With Industrial Attachment

Program Preparation:

– Training will provided to selected candidates (15 days).

– After successfully completion of the training only the qualified candidates will be appointed for the Internship Program.

 

Program # 1

SL Programme Specification
01 Basic operation on database: Oracle 11g.
02 Hands on training on application software: Inventory Management System Software.

 

Program # 2

SL Programme Specification
01 Basic operation on database: SQL Server.
02 Hands on training on application software: Diagnostic Management System Software.

 

Program # 3

SL Programme Specification
01 Affiliate marketing: Google blogger.
02 Affiliate marketing: Social media marketing (Facebook).

 

– Duration of each program: 6 Days (extended if required)

– Time Duration: 3 Hours per day

 

Call for details: 01961524145, 01713867116

For Details Please Visit: http://3itemplate.com/career

 

15 High-Paying AdSense Alternatives for Your Website

Posted by on Jul 10, 2016 in Blog | 0 comments

Don’t want to work with Google AdSense? No problem. There are many alternative ad networks available for those who don’t want or can’t work with Google for some reason.

Let’s look at some common scenarios in which people seek out alternate means of monetization.

Reasons to Look For AdSense Alternatives

There are many reasons to look for AdSense alternatives—the most important being to create a hedge against unexpected account troubles and suggest drops in revenue. Some other reasons I commonly hear about include:

  • Google AdSense rejects many sites for not having enough content or if they feel your site would not be appropriate for their advertisers.
  • Getting a site approved for Google AdSense is not as easy as it was in the past.
  • If you read any of the internet marketing or webmaster forums, I’m sure you’ve seen thread after thread with a title that goes something like… “AdSense banned me! Why?”
  • Google AdSense has a lot of rules and they monitor sites constantly. If you happen to break even one rule, they will not just ban the site, they will ban you and won’t let you open a new AdSense account. And even if you manage to open one somehow and they catch you later, they will ban the new account.
  • Did you know that if you even accidentally click on an ad on your site you could be banned for life?
  • Many site owners feel that Google AdSense rules are just too strict. Conforming to the many rules often leads to site design issues.
  • In some instances, you have to redesign your entire site just so you can use Google AdSense.
  • Contextual text ads sometimes just don’t fit a site’s design and layout. Other ad formats that Google AdSense does not support work better on many sites.

Types of Ads

Now let’s briefly take a look at the main types of ads available to publishers looking to shift to an AdSense alternative.

Targeted Text Ads: These ads are text-based and are usually found in groups. They are targeted to match the site’s content or the search phrase that was used on a search engine to bring them to your site’s page.

In-Text: These style of ads popup when you hover over selected text phrases with your mouse. A small box pops up and usually contains either image, text or video as well as the ad’s link.

Display: Display ads contain images, headlines, body text and other elements used to get a viewer’s attention. Sizes range from eighth page to full page ads.

Banner: These are your typical image ads you see on many sites. They can be just the image or an image with a text line above or below it. Sizes range from button size to half page and come in all orientations.

Alternative Ad Networks

Here are the top alternative ad networks that you can use instead of Google AdSense. Take your time and check out each one of them. You should find several that will work well with your sites.

 

 

 

Source: adpushup.com

 

পুরো সিনেমা ডাউনলোড হবে মাত্র ১ মিনিটে !!

Posted by on May 12, 2016 in Blog | 0 comments

চোখে পলক পড়ার আগেই ডাউনলোড হয়ে যাবে আস্ত একটা ফিল্ম! এক মিনিটও নয়, মাত্র এক সেকেন্ডেই! ডেটা স্পিড যখন, ফোর-জি, ফাইভ-জি, সিক্স-জি… জি-এর পর জি, নিশ্চয় এসবই মাথায় ঘুরছে। না কোনো জি-টি নয়, Li-Fi-এর বদৌলতে এখন সব সম্ভব হতে চলেছে।

Wi-Fi তো শুনেছেন। সে অর্থে, দুধের শিশুকেও আজকাল ওয়াই-ফাই কী বলে দিতে হয় না। এই ওয়াই-ফাইকে সরিয়ে, অদূর ভবিষ্যতে যে তার জায়গা নিতে চলেছে, তারা নাম লাই-ফাই।

বলতে পারেন ওয়াই-ফাইয়ের সুপার-ফাস্ট বিকল্প। পরিকল্পনার স্তরে নয়, ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষিত, হাতেনাতে প্রমাণিত। এতটাই জোরে ছোটে একটা পূর্ণদৈর্ঘ্যের সিনেমা ডাউনলোড হয়ে যায় সেকেন্ডে।

স্পিড ১ GBps। হিসেব কষলে দেখা যাবে, বর্তমান ওয়াই-ফাই প্রযুক্তির থেকে ১০০ গুণ দ্রুততর।

এই প্রযুক্তির নেপথ্যে যিনি, তিনি অধ্যাপ

LIGHT FIDELITY – The Future of Internet

ক হ্যারল্ড হাস। এই লাই-ফাই দুনিয়ার সঙ্গে পরিচয় ঘটিয়েছেন তিনিই, এটা তারই আবিষ্কার।

কী এই লাই-ফাই? এক কথায় বললে, বিশেষ ধরনের একটি আলো। যার থেকে নির্গত রশ্মির মধ্য দিয়েই তথ্য যায় বাতাসে ভর করে। ফাইবার অপটিক নেটওয়ার্কে এই আলোকে কাজে লাগিয়েই ডেটা পাঠানো হয়ে থাকে।

 

LIGHT FIDELITY - The Future of Internet

এডিনবর্গ ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক হ্যারল্ড হস ২০১১ সালেই এই প্রযুক্তি আবিষ্কার করেন। দেখান, কীভাবে সিঙ্গল লেডের মাধ্যমে সেলুলার টাওয়ারের থেকে বেশি ডেটা দ্রুত পাঠানো যায়।

এতদিন পরীক্ষামূলকভাবে এয়ারলাইন্সে এই প্রযুক্তি কাজে লাগানো হচ্ছিল। ইন-ফ্লাইট যোগাযোগ রাখা হচ্ছিল লাই-ফাইকে কাজে লাগিয়ে। এমনকী গোয়েন্দারাও তা ব্যবহার করেছেন।

Source: প্রথম নিউজ ডেস্ক